তরুন ঘোষ ও পরিতোষ সাহার নেতৃত্বে বাগদায় দিদি কে বলো কর্মসূচি

জয়দীপ চক্রবর্তী, বাগদা : শনিবার বাগদা বিধানসভার সিন্দ্রানি পঞ্চায়েতের চরমন্ডল গ্রামে দুপুর দুটো থেকে দিদি কে বলো কর্মসূচি শুরু হয় তৃণমূল কংগ্রেসের বিধানসভা কমিটির চেয়ারম্যান তরুন ঘোষের নেতৃত্বে।তুমুল বৃষ্টিতে প্রতিকূল হওয়া সত্বেও গ্রামের মহিলা থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।
মানুষ তাদের বিভিন্ন অভাব অভিযোগের কথা নেতৃত্ব-দের সামনে পেয়ে জানান।নেতৃত্ব মনোযোগ সহকারে মানুষের কথা শোনেন,সমাধানের উপায় থেকে সর্বোপরি দিদিকে বলো কর্মসূচি মানুষের সামনে সবিস্তারে ব্যাখ্যা করেন।চরমন্ডল এমনি তে পিছিয়ে পরা মানুষের কলোনি অধ্যুষিত এলাকা।গ্রামের ধার দিয়ে বয়ে গেছে ইচ্ছামতি নদী।সেই নদীর উপর একটি সাঁকোর দাবি করেন গ্রামের মানুষ।

অন্যদিকে মঙ্গলবার কনিয়ারার গোবিন্দপুরে দিদিকে বলো কর্মসূচি তৃণমূল কংগ্রেসের বাগদা বিধানসভার চেয়ারম্যান তরুন ঘোষের নেতৃত্ব সারাদিন ধরে গ্রামের ব্যাপক অংশের মানুষের উপস্থিতি তে সংগঠিত হয়।দুটো কর্মসূচিতে তৃণমূলের বাগদা বিধানসভা কমিটির চেয়ারম্যান তরুন ঘোষ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায়, যুব নেত্রী ও কর্মাধ্যক্ষ প্রতিমা রায়,পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ ভানুমতী বালা, ব্লক কমিটির সদস্য সাহাদত মন্ডল, যুব নেতা নিউটন বালা,যুব নেতা কঙ্কন হালদার,অমূল্য হালদার অরূপ পাল এবং অন্যান্যরা । শনিবার রাতে চরমন্ডল গ্রামে তরুন ঘোষ এবং কঙ্কন হালদার গ্রামে রাত কাটান।সকালে গ্রামের মানুষের সাথে দীর্ঘ সময় কাটান,তাদের অভাব অভিযোগ শোনেন।প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

অন্য দিকে তৃণমূল কংগ্রেসের বাগদা ব্লক সভাপতি পরিতোষ সাহা র নেতৃত্বে বাগদা বিধানসভার রণঘাট অঞ্চলের কুলিয়া গ্রামে ও কনিয়ারা 1 অঞ্চলের করঙ্গ গ্রামে দিদিকে বলো কর্মসূচি তে স্থানীয় পিছিয়ে পরা সম্প্রদায়ের মানুষ থেকে শুরু করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পরার মতো।দুটো কর্মসূচি তে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য গোপা রায়, যুব নেত্রী প্রতিমা রায়,পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য,কর্মাধ্যক্ষ,দলের ব্লক ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।ব্লক সভাপতি পরিতোষ সাহা দিদি কে বলো কর্মসূচি গ্রামের মানুষের কাছে ব্যাখ্যা করেন।প্রিয় নেতাকে পাশে পেয়ে গ্রামের মানুষ তাদের অভাব অভিযোগ কথা জানান।স্থানীয় স্তরে বিভিন্ন দাবিদাওয়া উঠে আসে।নেতৃত্ব মানুষের কথা শোনেন এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন।

রাতে গ্রামের এক বাড়িতে পরিতোষ সাহা সহ অন্যান্যরা রাতের খাবার খান এবং রাত্রি যাপন করেন।পরের দিন গ্রামের মানুষের সাথে নিয়ে গ্রামের বিভিন্ন পাড়াতে মানুষের মুখোমুখি হন,রাস্তা, পানীয় জল,থেকে শুরু করে দৈনন্দিন জরুরী সরকার পরিষেবার খোঁজখবর নেন।যেখানে সামান্যতম ত্রুটি লক্ষ্য করেন তা শীঘ্রই যাতে সমাধান হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন।পরে দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে ব্লক সভাপতি পরিতোষ সাহা কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন ।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail