প্রকাশিত উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল

নিউজ ডিজিটাল : রাজ্যে ঘোষিত উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল৷সূত্রের খবর পরীক্ষার ৭৪ দিনের ফলপ্রকাশ করল উচ্চশিক্ষা সংসদ৷ সকাল ১০টায় বিদ্যাসাগর ভবনে সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করলেন উচ্চশিক্ষা সংসদের সভানেত্রী মহুয়া দাস৷ ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৩ মার্চ পরীক্ষা হয়েছে৷ সাফল্যের নিরিখে উচ্চমাধ্যমিকে ছাত্রীরা কিছুটা পিছিয়ে পড়ল৷ এবার মোট পাশের হার ৮৬.২৯ শতাংশ৷ ছাত্রদের পাশের হার ৮৭.৪৪ শতাংশ, ছাত্রীদের হার ৮৫.৩০ শতাংশ৷ দুই মেদিনীপুর, কলকাতা এবং কালিম্পং -এই চার জেলায় পাশের হার ৯০ শতাংশের বেশি৷

মেধাতালিকার প্রথম দশে রয়েছেন ১৩৭ জন ছাত্রছাত্রী, যা উচ্চশিক্ষা সংসদের ইতিহাসে এই প্রথম বলে জানিয়েছেন চেয়ারপার্সন মহুয়া দাস৷ এদের মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৩৫৷ মেধাতালিকায় অধিকাংশ স্থানই দখল করে নিয়েছে জেলার পড়ুয়ারা৷ প্রথম তিনে কোচবিহারের বেশ কয়েকজনের নাম রয়েছে৷এমনকী প্রথম স্থানও যুগ্মভাবে দখল করেছেন দু’জন৷ কলকাতারও বেশ কয়েকজন পরীক্ষার্থী নিজেদের নাম তুলেছে মেধাতালিকায়৷ একনজরে দেখে নেওয়া যাক প্রথম দশের মেধাতালিকা৷

প্রথম: শোভন মণ্ডল (৪৯৮)– বীরভূম এবং রাজর্ষি বর্মন (৪৯৮)– কোচবিহার জেনকিন্স স্কুল৷
দ্বিতীয়: সংযুক্তা বসু (৪৯৬) – বিধাননগর হাইস্কুল, তন্ময় মাইকাপ (৪৯৬)– বাজকুল বলাইচন্দ্র বিদ্যাপীঠ,পূর্ব মেদিনীপুর,
স্বর্ণদীপ সাহা(৪৯৬) – কোচবিহার দিনহাটা হাইস্কুল, ঋতম নাথ (৪৯৬) – কৃষ্ণনগর মহঃ মাসুম আখতার৷

তৃতীয়: মৃন্ময় দেবনাথ (৪৯৪), সুপ্রিয় শীল (৪৯৪), বর্ণালী ঘোষ (৪৯৪), সুক্রিয় চক্রবর্তী (৪৯৪)

চতুর্থ: শ্রমণ জানা (৪৯২) – হুগলি, শ্রেয়শ্রী সরকার (৪৯২) – টাকি গভঃ স্পনসর্ড স্কুল (কলকাতা)

পঞ্চম: সূ্র্যতপ বসু (৪৯১) – নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন, সত্যম কর (৪৯১)- যাদবপুর বিদ্যাপীঠ৷

ষষ্ঠ: পল্লব ঘোষ (৪৯০) – পাঠভবন হাইস্কুল, কিরণ মণ্ডল (৪৯০) – বাগনান হাইস্কুল, মোজাম্মেল হক (৪৯০) – বাঁকুড়া জেলা স্কুল৷

সপ্তম: সুনয়ন সরকার (৪৮৯) – আরামবাগ হাইস্কুল, সাফিদা খাতুন (৪৮৯), সৈকত বেরা (৪৮৯) – বালিপুর মেলাতলা হাইস্কুল, হুগলি৷

অষ্টম: সৌম্যদীপ পায়রা (৪৮৮) – পাথফাইন্ডার এইচএস পাবলিক স্কুল, যোধপুর পার্ক, গৌরব সিনহা (৪৮৮) – বাঁকুড়া বঙ্গ বিদ্যালয়৷

সোমবার সকাল ১১টা থেকে সংসদ নির্ধারিত ওয়েবসাইটে নিজেদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিলেই ফলাফল জানতে পারবেন পরীক্ষার্থীরা। এসএমএসের মাধ্যমেও জানা যাবে ফল। নম্বরের সঙ্গে মার্কশিটে থাকবে গ্রেডেশনও। এবছর নেপালি, উর্দু, সাঁওতালি ভাষাতেও পরীক্ষার ফলাফল বেশ ভাল বলে জানিয়েছে সংসদ৷ প্রতিটি ভাষাতেই পাশের হার ৯০ শতাংশের বেশি৷

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail