Skip to Content

সিরাজ উদ্যানের উদ্বোধন

সিরাজ উদ্যানের উদ্বোধন

Closed

অর্পিতা ঘোষ,বারাসাত : বারাসাতের জেলাশাসক কার্যালয়ের পাশে ইতিহাস প্রসিদ্ধ হাতি পুকুরের নবরূপ সিরাজ উদ্যানের ১২ জানুয়ারী উদ্বোধন হলো। বারাসাত পৌরসভার উদ্যোগে নবরূপে সজ্জিত উদ্যানের ঢোকার মুখে চোখে পড়বে নবাবি তোড়ণ,পার্কের ভিতর আছে হাতি ও ঘোড়ার বিভিন্ন মডেল।

এরই পাশাপাশি রয়েছে বাংলার নবাব সিরাজদ্দৌলার মূর্তি,টয় ট্রেন,শিকারা এবং আড্ডা দেওয়ার জন্য কফি শপ সহ অনেক কিছু। সিরাজ উদ্যানে আলো ও শব্দের মাধ্যমে শোনা যাবে বঙ্গের মনি বারাসাতের ইতিহাস। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ ডা: কাকলি ঘোষ দস্তিদার,উত্তর 24 পরগণার জেলাশাসক অন্তরা আচার্য,বিধায়ক চিরঞ্জিত চক্রবর্তী ও রথীন ঘোষ,বারাসাত পৌরসভা পুরপ্রধান সুনীল মুখার্জী,উপ পৌর প্রধান অশনি মুখার্জী সহ বিশিষ্টরা।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বারাসাতের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গন সহ অন্যান্যরা। হাতি পুকুর বারাসাতের ঐতিহ্য,আমরা যত্ন করে সেই ঐতিহ্য রক্ষা করলাম বলে জানান সাংসদ। দীর্ঘদিন ধরে অযত্নে,অবহেলায় পড়ে থাকা ইতিহাস প্রসিদ্ধ হাতি পুকুরকে নবরূপে বারাসাতবাসীকে উপহার দিয়ে বেশ ভালো লাগছে এমনটাই এক প্রশ্নের উত্তরে জানান সাংসদ ডা: কাকলি ঘোষ দস্তিদার।

সিরাজ উদ্যানের প্রথম পরিকল্পনাটি দেন বারাসাতে সাংসদ,দীর্ঘ আট মাস ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে সিরাজ উদ্যান শেষমেষ বারাসাতবাসীকে উপহার দেওয়া সম্ভব হয়েছে,পার্কের রক্ষণাবেক্ষণ বিষয়ে বারাসাত পৌরসভা একটি এজেন্সিকে দায়িত্ব দেওয়ার কথা ভাবছে এমনটাই এক প্রশ্নের উত্তরে জানান বারাসাত পৌরসভার পৌর প্রধান সুনীল মুখার্জী। সিরাজ উদ্যানের ঠিক পাশে একটি আর্ট গ্যালারি নির্মিত হবে, ইতিমধ্যে উদ্যানটি নির্মাণ করতে প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা খরচ হয়ে গেছে বলে জানান বারাসাতের চেয়ারম্যান। সিরাজ উদ্যানের প্রবেশ মূল্য ১৫ টাকা,টয়ট্রেন মাথাপিছু ১০টাকা পাশাপাশি শিকারা মাথাপিছু ১৫ টাকা লাগবে তবে লাইট অ্যান্ড সাউন্ড দর্শনার্থীরা বিনামূল্যে দেখতে পাবেন। উদ্বোধনের দিন সিরাজ উদ্যানে জনসমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail
Previous
Next