২৪ তম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সূচনা হলো

অর্পিতা ঘোষ,কলকাতা : ১০ নভেম্বর কলকাতা নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে ২৪তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সূচনা হলো। নেতাজি ইন্ডোরে এই চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন করেন শাহেনশা অমিতাভ বচ্চন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, শাহরুখ খান, জয়া বচ্চন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, মাধবী মুখোপাধ্যায়, শর্মিলা ঠাকুর, ওয়াহিদা রহমান, ইরানিয়ান পরিচালক মাজিদ মাজিদি, সৃজিত মুখোপাধ্যায়, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়, মহেশ ভাট, শ্রাবন্তী, শ্রীকান্ত মেহেতা প্রমুখ। সমবেত প্রদীপ প্রজ্জ্বলন,শঙ্খ ও ঢাক বাজিয়ে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের শুভ সূচনা হয়। বাংলা সিনেমার ১০০ বছর উপলক্ষে উৎসবের শুরুতেই ছিল সংগীতবন্দনা। পরিবেশনা করেন উস্তাদ রশিদ খান, তেজেন্দ্র নারায়ণ মজুমদার, বিক্রম ঘোষ, লোপামুদ্রা, রূপঙ্কর ও উষা উত্থুপ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি অমিতাভকে স্বাগত জানান অভিনেতা দেব। বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেটার শাহরুখ খানকে সম্মান জানান অভিনেত্রী মিমি। অন্যদিকে বাংলা সিনেমার বিখ্যাত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে শ্রদ্ধা জানান টলিউডের সুপারস্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এবছর ফিল্ম ফেস্টিভাল শুরু হয় উত্তম কুমার অভিনীত ছবি দিয়ে। চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথম ছবি দেখানো হয় ‘অ্যান্টনী ফিরিঙ্গি’। এবছর বাংলা সিনেমার ১০০ বছর পূর্তি তাই ২৪ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চে বাংলা ফিল্ম ডিরেক্টরি প্রকাশ করেন অমিতাভ বচ্চন। এদিন অমিতাভ বচ্চনের বক্তব্যে উঠে আসে রবীন্দ্রনাথের প্রসঙ্গ। বিগ বির বক্তব্যে উঠে আসে সত্যজিৎ রায়, বিমল রায়, ঋষিকেষ মুখোপাধ্যায়ের মত খ্যতমানা ব্যক্তিত্বের কথা, যাঁরা শুধু বাংলা নয় ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে মহিরুহের মতো। পুরনো চলচ্চিত্র সংরক্ষণের প্রসঙ্গও এদিন তুলে ধরেন অমিতাভ। পুরনো বাংলা ছবি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে ধন্যবাদ জানান অমিতাভ বচ্চন। উপস্থিত অতিথিরা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে মূল্যবান বক্তব্য রাখেন। আগামী বছর আরও বড় করে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সব আয়োজনের ইঙ্গিত দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। আগামী বছর কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২৫ বছরে পা রাখবে বলে কান ফেস্টিভ্যালের মতো হতে পারে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব এমনটাই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে ফুটে ওঠে। ৭০টি দেশের ১৭১টি ফিচার ফিল্ম দেখানো হবে এই চলচ্চিত্র উৎসবে। ১৫০টি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিও দেখানো হবে। এবছর ১৬টি ভেন্যুতে ৩২২টি সিনেমা দেখানো হবে। কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বিভিন্ন তারকাদের সমাবেশে শুরু হলো তা কিন্তু বলাই যায়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail