রাজ্যে মাধ্যমিকে এগিয়ে মেয়েরাই

নিউজ ডিজিটাল : পরীক্ষার ৮৮দিনের মাথায় প্রকাশিত হল মাধ্যমিকের ফলাফল৷ সূত্রের খবর সকাল ৯টা নাগাদ সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করলেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়৷ সাফল্যের নিরিখে ছাত্রদের পিছনে ফেলে মাধ্যমিকেও এগিয়ে ছাত্রীরা ৷ পড়ুয়াদের উত্তীর্ণের হারের বিচারে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা৷এবছর মোট পাশের হার ৮৬.০৭ শতাংশ৷ যা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ৷
একনজরে দেখে নিন মাধ্যমিকের সম্ভাব্য মেধাতালিকা :-

প্রথম: ৬৯৪ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠের সৌগত দাস৷

দ্বিতীয়: ৬৯১ নম্বর পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছে দুই ছাত্রী৷ আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটা গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী শ্রেয়সী পাল এবং কোচবিহারের দেবস্মিতা সাহা৷

তৃতীয়: ৬৮৯ নম্বর পেয়ে তৃতীয় হয়েছে দুজন৷ রায়গঞ্জ গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী ক্যামেলিয়া রায়৷ নদিয়ার শান্তিপুর মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুলের ব্রতীন মণ্ডল৷

চতুর্থ: আলিপুরদুয়ারে বারোবিশা হাইস্কুলের ছাত্র অরিত্র সাহা ৬৮৭ নম্বর পেয়ে চতুর্থ স্থান দখল করেছে৷

পঞ্চম: ৬৮৬ নম্বর পেয়ে পঞ্চম স্থান দখল করেছে বেশ কয়েকজন৷ হুগলি কলেজিয়েট স্কুলের সুকল্প দে এবং রুমানা সুলতানা৷

ষষ্ঠ: ৬৮৫ নম্বর পেয়ে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে পাঁচজন৷ গোঘাট হাইস্কুলের সোহম দে, রামপুরহাট হাইস্কুলের সাবর্ণী চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান বিদ্যার্থী ভবন গার্লস হাইস্কুলের সাহিত্যিকা ঘোষ, আলিগঞ্জ ঋষি রাজনারায়ণ বালিকা বিদ্যালয়ের সুপর্ণা সাহু, মহিয়াড়ি কুন্ডুচৌধুরি ইনস্টিটিউটশনের অঙ্কন চক্রবর্তী৷

সপ্তম: ৬৮৪ নম্বর পেয়ে সপ্তম স্থান অধিকার করেছে অন্তত ৩জন৷ মেধাতালিকায় রয়েছে কোচবিহারে ইলাদেবী গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী গায়ত্রী মোদক, ঘাটাল বিদ্যাসাগর হাইস্কুলের অনীক চক্রবর্তী, নদিয়ার রবিতীর্থ বিদ্যালয়ের সপ্তর্ষি দত্ত৷

অষ্টম: ৬৮৩ নম্বর পেয়ে অষ্টম স্থান দখল করেছে কোচবিহারের শীতলকুচি হাইস্কুলের ছাত্র শাহনাওয়াজ আলম, গঙ্গারামপুর হাইস্কুলের সায়ন্তন বসাক, বাঁকুড়ার বিবেকানন্দ শিক্ষানিকেতনের অর্কপ্রভ সাহানা৷ রামহরিপুর রামকৃষ্ণ মিশন হাইস্কুলের ছাত্র পৃথ্বীশ কর্মকার, বর্ধমান বিদ্যার্থী ভবন গার্লস হাইস্কুলের অয়ন্তিকা মাঝি৷ কাটোয়া কাশীরাম দাস ইনস্টিটিউশনের পুষ্কর ঘোষ, আমতলা নিবেদিতা বালিকা বিদ্যালয়ের শ্রীমন্তী চক্রবর্তী৷ এছাড়াও রয়েছে কৌশিক সাঁতরা, সুদীপ্ত ধবল, সায়ন্তন দত্ত, দেবলীনা দাস৷

নবম: মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় নবম স্থান অধিকার করেছে ৯জন৷ ৬৮২ নম্বর পেয়েছে জয়েশ রায়, জলপাইগুড়ির আশালতা বিদ্যালয়ের অনুষ্কা মহাপাত্র, সৌগত পাণ্ডা, শুভদীপ কুন্ডু, কাঁথি হাইস্কুলের প্রত্যুষ করণ, জ্ঞানদীপ বিদ্যাপীঠ হাইস্কুলের অরুণিমা ত্রিপাঠী, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়ের অভিনন্দন জানা, সৌকর্ষ বিশ্বাস, ঐকিক মাঝি৷

দশম: রায়গঞ্জ গার্লস হাইস্কুলের সঞ্চারী চক্রবর্তী, বার্লো গার্লস হাইস্কুলের সায়ন্তিকা দাস, বাঁকুড়া সারদা বিদ্যাপীঠের সৌধ হাজরা, ধনেখালি মহামায়া বিদ্যামন্দিরের সৌম্যদীপ দত্ত, বীরভূমের নেতাজি বিদ্যাভবনের অরিত্র মহড়া, সায়ন্তিকা রায়, সাথী কুন্ডু, সহেলি রায়, দেবমাল্য সাহা, প্রত্যাশা মজুমদার, অঙ্কিতা কুণ্ডু, যাদবপুর বিদ্যাপীঠের সোহম দাস৷ এছাড়াও রয়েছে রিমা চক্রবর্তী, সৌম্যদীপ ঘোষ৷

 

 

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail